সোমবার, ২৪ Jun ২০২৪, ০৫:১২ পূর্বাহ্ন




গা টিপে দেওয়ার কথা বলে পুত্রবধূর সর্বনাশ করেন শ্বশুর

গা টিপে দেওয়ার কথা বলে পুত্রবধূর সর্বনাশ করেন শ্বশুর

নিউজ ডেস্ক :
পঞ্চগড়ে পুত্রবধূকে ধর্ষণ করে বাড়ি থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন এক শ্বশুর। ভুক্তভোগী পুত্রবধূ নিজেই তার স্বামী, প্রতিবেশী এমনকি সাংবাদিকদের সামনে এ কথা জানিয়েছেন। ধর্ষণের খবর জানাজানি হলে গ্রামবাসী ও ছেলের হাত থেকে বাঁচতে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন অভিযুক্ত শ্বশুর।
পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার বেংহারী ইউনিয়নের একটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, অভিযুক্ত শ্বশুর পেশায় একজন দিনমজুর হলেও তার পাঁচজন স্ত্রী। দশ বছর আগে তার বিরুদ্ধে নিজ গ্রামের এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে। অভিযুক্ত শ্বশুরের নামে ছোট বড় এরকম যৌন নির্যাতনের কথা বারবার শোনা যায়। এমন চরিত্রের কারণে তার তিনটি বউ পালিয়ে যান। বর্তমানে দুই স্ত্রী এবং এক ছেলে ও পুত্রবধূকে নিয়ে একই বাড়িতে বসবাস করেন তিনি।

সম্প্রতি অভিযুক্ত ব্যক্তির ছেলে একটি মামলার আসামি হয়ে জেলহাজতে রয়েছেন। এতে ঐ ছেলের স্ত্রী বাবার বাড়িতে চলে যান। তবে কিছুদিন পরেই অভিযুক্ত শ্বশুর পুত্রবধূকে বাড়িতে নিয়ে আসেন। এদিকে ছেলে না থাকার সুযোগে পুত্রবধূকে প্রায় রাতেই শারীরিক চাহিদা মিটাতে অনৈতিক আবদার করেছিলেন শ্বশুর। বিশেষ করে রাতে ঝড়-বৃষ্টি হলেই পুত্রবধূর ঘরে ঢুকে পুত্রবধূকে গা টিপে দেওয়ার কথা বলে শারীরিক চাহিদার আবেদন জানাতেন। মাঝে মাঝে দুই স্ত্রী বাড়ির বাইরে থাকার সময় পুত্রবধূকে মানসিক নির্যাতন করতেন। একইসঙ্গে অভিযুক্ত শ্বশুর পুত্রবধূকে ধর্ষণের কথা কাউকে বললে হত্যার হুমকি দেন।

এরইমধ্যে ভুক্তভোগীকে তিনবার ধর্ষণ করেন অভিযুক্ত শ্বশুর। সবশেষ গত ২ জুন (শুক্রবার) রাতে পুত্রবধূর ঘরের শিকল খুলে ঢুকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন। এ সময় ভুক্তভোগী চিৎকারে অভিযুক্ত শ্বশুরের স্ত্রী এবং প্রতিবেশীরা ছুটে আসলে তিনি ঘর থেকে পালিয়ে যান। এরপর আর বাড়িতে আসেননি।

ভুক্তভোগী পুত্রবধূ বলেন, স্বামী বাড়িতে না থাকায় বাবার বাড়িতে ছিলাম। তবে আমার শ্বশুর জোর করে আমাকে বাড়িতে নিয়ে আসেন। রাতে আঁধারে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন তিনি। এ কথা কাউকে জানালে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়। আমি আমার শ্বশুরের বিচার চাই।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শ্বশুর পলাতক থাকায় তার সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

বেংহারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাহেব আলী বলেন, অভিযুক্ত শ্বশুর তার পুত্রবধূকে ধর্ষণ করেছেন- এমন অভিযোগ নিয়ে আমার কাছে ঐ গ্রামবাসী এসেছিলেন। গ্রামবাসী এর বিচার দাবি করেন। আমি ঐ পুত্রবধূকে থানায় অভিযোগ দিতে বলেছি।

বোদা থানার ওসি সুজয় কুমার রায় জানান, শ্বশুর পূত্রবধূকে ধর্ষণ করেছেন- এমন কোনো অভিযোগ এখনো থানায় আসেনি। তবে এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে অবশ্যই আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন







© All rights reserved © uttorersomoy.com
Design BY BinduIT.Com