মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৯:২৬ পূর্বাহ্ন




মুশফিকুর রহিমের অবসরে ব্যথিত সতীর্থরা

মুশফিকুর রহিমের অবসরে ব্যথিত সতীর্থরা

নিউজ ডেস্ক :
আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের উইকেটরক্ষক ব্যাটার মুশফিকুর রহিম।

তীব্র সমালোচনা ও এশিয়া কাপে ব্যর্থতার পর রোববার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজের ভেরিফাইড পেজ থেকে এই ঘোষণা দেন তিনি। মুশফিকের অবসরের খবরে আবেগাক্রান্ত হয়েছেন তার দীর্ঘদিনের সতীর্থরা। একে একে তার সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়ে পোস্ট করছেন ফেসবুকে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ লিখেছেন, প্রিয় মুশফিক, তোমার ঘোষণা শোনাটা ছিল হৃদয়বিদারক। কিন্তু আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ার ও অর্জন তুমি ভালো করেছো। তোমার সঙ্গে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলা ছিল আনন্দের। তোমার কাজের ধরণ যে কোনো ফরম্যাটে অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবে।

পেসার রুবেল হোসেন লিখেছেন, থ্যাঙ্ক ইউ মিস্টার ডিপেন্ডেবল, আপনার জন্য অনেক অনেক শুভকামনা কিন্তু এটাও সত্য আপনাকে বাংলাদেশ মিস করবে।

সাবেক ক্রিকেটার শাহরিয়ার নাফিস লিখেছেন, আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেন মুশফিকুর রহিম, বাংলাদেশের হয়ে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তোমার অবদানের জন্য ধন্যবাদ। ভবিষ্যতের জন্য শুভকামনা…

এর আগে রোববার দুপুরে অবসরের ঘোষণা দিয়ে নিজের ফেসবুক পেজে পোস্ট করেন মুসফিকুর রহিম। ফেসবুক পোস্টে তিনি লেখেন, ‘সবাইকে সালাম এবং শুভেচ্ছা। দীর্ঘ ক্রিকেট ক্যারিয়ারের যাত্রায় আমি আপনাদের সবাইকে পাশে পেয়েছি। ভালো এবং খারাপ দুই সময়েই আপনাদের অকুণ্ঠ সমর্থন আমার প্রেরণা। ’ যদিও ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি চালিয়ে যাবেন জানিয়ে মুশফিক লিখেছেন, ‘টি টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ক্যারিয়ার থেকে আজ আমি অবসর নিচ্ছি। তবে, বাংলাদেশের হয়ে টেস্ট এবং ওয়ানডে খেলা চালিয়ে যাব। আশা করছি এই দুই ফরম্যাটে আমি আরও কিছু নিয়ে আসতে পারব দেশের জন্য। ’

‘বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) সহ অন্যান্য ফ্রেঞ্চাইজি লিগে আমি আমার খেলা চালিয়ে যাবো টি টোয়েন্টি ফরম্যাটে। আলহামদুলিল্লাহ। সবার নিকট কৃতজ্ঞতা। ধন্যবাদ। আল্লাহ হাফেজ। ’

এদিকে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ব্যাট হাতে কখনোই খুব বেশি আলো ছড়াতে পারেননি মুশফিক। ১০২টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে ১৯.৪৮ গড়ে ১৫০০ রান করেছেন তিনি। ৯৩ ইনিংসে ব্যাট করে মাত্র ৬ বার অর্ধশতক পেরিয়েছেন মুশফিক।

২০১৮ সালে নিদাহাস ট্রফিতে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলেছিলেন ক্যারিয়ারসেরা ৩৫ বলে ৭২ রানের অপরাজিত ইনিংস। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে মুশফিকের ক্যারিয়ার স্ট্রাইক রেট ১১৫.০৩।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে উইকেটরক্ষক হিসেবে সবচেয়ে বেশি ডিসমিসালের অধিকারী ক্রিকেটারদের তালিকায় চতুর্থ স্থানে রয়েছেন মুশফিক। ১৬ বছরের ক্যারিয়ারে উইকেটরক্ষক ক্যাচ-স্টাম্পিং মিলিয়ে ৬২টি ডিসমিসাল রয়েছে তার ঝুলিতে।

এই তালিকায় তার সামনে রয়েছেন কেবল ভারতের মহেন্দ্র সিং ধোনি (৯১ ডিসমিসাল), দক্ষন আফ্রিকার কুইন্টন ডি কক (৭৭) এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের দীনেশ রামদিন (৬৩)।

আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে সবমিলিয়ে ৪২টি ক্যাচ তালুবন্দি করেছেন, যার মধ্যে উইকেটরক্ষক হিসেবে ৩২টি ক্যাচ নিয়েছেন মুশফিক। উইকেটরক্ষক হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ ক্যাচের দিক দিয়ে বিশ্বে সপ্তম এই বাংলাদেশি উইকেটরক্ষক।

এছাড়া তার ৩০টি স্টাম্পিং টি-টোয়েন্টি ইতিহাসে উইকেটরক্ষকদের মধ্যে তৃতীয় সর্বোচ্চ। এই কীর্তিতে তার সামনে রয়েছেন শুধু ভারতের মহেন্দ্র সিং ধোনি (৩৪ স্টাম্পিং) এবং পাকিস্তানের কামরান আকমল (৩২)।

নিউজটি শেয়ার করুন







© All rights reserved © uttorersomoy.com
Design BY BinduIT.Com