মঙ্গলবার, ২৮ Jun ২০২২, ০২:৩২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম




কুড়িগ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ছয়টি পরিবারের স্ত্রী সন্তানকে বেদম মারপিট ও লুটপাট

কুড়িগ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ছয়টি পরিবারের স্ত্রী সন্তানকে বেদম মারপিট ও লুটপাট

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি :
কুড়িগ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ছয় পরিবারে লুটপাট সংঘটিত হয়েছে। সহায়-সম্বল হারিয়ে নিঃস্ব এসব পরিবার। নিরাপত্তা চেয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে ভূক্তভোগী পরিবার।

জানা গেছে, কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার ভোগডাঙ্গা ইউনিয়নের চর বড়াইবাড়ি গ্রামের উজির মামুদের পুত্র মোঃ বাইজুদ্দিন (৪৫) এর সাথে একই এলাকার এনামুল-রফিকুল দ্বয়ের সঙ্গে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে কোর্টে একটি মামলাও করেন বাইজুদ্দিন। যার নং-২১৫/২০১৫ইং এবং বিবাদী পক্ষ থেকে একটি ১০৭ ধারায় মামলা করেন। যার পিটিশন নং-৩৫/২২ইং(কুড়িঃ)। এভাবে চলাবস্থায় বাইজুদ্দিন ও তার ভাই-ভাতিজারা কাজের সুবাধে জেলার বাইরে থাকায় গত ১৫.০৫.২০২২ইং দুপুরে এনামুল, রফিকুল, মাসুদ, মেন্ডেল, ইয়াকুব, হামিদুল, এরশাদুল, জাহেদুল, উলদ্দি, নুরনবী, ফুলদ্দিন, আনিছুর সহ আরো ২০/২৫জনের সংঘবদ্ধ একটি দল দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলা চালিয়ে চর বড়াইবাড়ী এলাকার বাইজুদ্দিন, জিয়ারুল হক, আজিজুল, আব্দুল হক, রেজাউল করিম ও শামছুলের বাড়ি ঘরে প্রবেশ কর এলোপাতাড়ি তাদের স্ত্রী সন্তানকে বেদম মারপিট করে এবং আতঙ্ক ছড়াতে ধারালো অস্ত্রের মাধ্যমে হত্যা করা হবে মর্মে হুমকি দিলে তারা প্রাণভয়ে পালিয়ে যায়। এই সুযোগে বাইজুদ্দিন ও তাদের ভাই-ভাতিজাদের বাড়ি-ঘর, স্বর্ণালঙ্কার, মটর পাম্প, স্প্রে মেশিন, ধান-চাল, সোলার প্যানেল, ফ্যান, টিভি, ফ্রিজ, ট্রাংক, সুকেজ, নগদ টাকা ও আলমারী, অর্ধশত গরু-ছাগল ও প্রয়োজনীয় আসববাপত্রসহ প্রায় ২৫-৩০ লক্ষ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এতে এলাকাবাসী বাঁধা দিলে তাদেরও হত্যার হুমকি প্রদর্শন করে।

এলাকার নাসির উদ্দিন, বাবর আলী, আবুল কাশেম সহ আরো অনেকে জানান, যেভাবে বাড়ি-ঘর লুটপাট করা হয়েছে তা ৭১’র যুদ্ধকে হার মানিয়েছে। এ সমস্ত পরিবারে বাচ্চাদের বিছানা পর্যন্ত নাই। যা অমানবিক।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত এনামুলের বড় ভাই সাইদুল ইসলাম বলেন, আমি হাসপাতালে আছি। এলাকায় কার ঘরবাড়ি লুটপাট হয়েছে আমি এ ব্যাপারে কিছুই জানি না।

এলাকার আমির হোসেন জানান, গত ১০মে-২২ইং তারিখ বড়াইবাড়ি এলাকায় একটি সংঘর্ষে এক ব্যক্তি নিহত হয়। এরই সুযোগে পূর্ব শত্রুতার খায়েশ মেটাতে হত্যাকান্ডের জড়িত থাকার অভিযোগ তুলে বাইজুদ্দিন ও তার ভাই-ভাতিজার বাড়িঘর লুটপাট করা হয়েছে। আসলে তিনি বা তার ভাই-ভাতিজারা এর সাথে কোনভাবেই সম্পৃক্ত নয়। যা এলাকার সবাই জানে।

লুটপাটে সবকিছু হারিয়ে নিঃস্ব হওয়া আজিজুল ইসলাম কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন-আমি কুমিল্লায় কাজে ছিলাম। আমার স্ত্রী ফোনে বলছিল ঘরবাড়ি সব লুটপাট করে নিয়ে যাচ্ছে এনামুল-রফিকুলেরা। স্ত্রীর ফোন পেয়ে বাসায় এসে দেখি ভাত রান্না করার হাড়ি-পাতিলও নেই। আমার সব শেষ।

এ ব্যাপারে কুড়িগ্রাম সদর থানার অফিসার ইনচার্জ খান মোহাম্মদ শাহরিয়ার ঘটনার সত্যতার স্বীকার করে বলেন-ওখানে একটি হত্যাকান্ড সংঘটিত হয়েছে সেটির জের ধরে হয়তো ভাংচরের ঘটনা ঘটতে পারে। নিরাপরাধ মানুষের ঘরবাড়ি অন্যায়ভাবে কেউ লুটপাট করে থাকলে আমাকে অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন







© All rights reserved © uttorersomoy.com
Design BY BinduIT.Com