রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৭:৪২ অপরাহ্ন




বিয়ের ১০ বছর পর জীবন বিসর্জনে শেষ হলো ‘নিষিদ্ধ প্রেম’

বিয়ের ১০ বছর পর জীবন বিসর্জনে শেষ হলো ‘নিষিদ্ধ প্রেম’

নিউজ ডেস্ক :
স্বামী বিদেশে থাকায় প্রতিবেশী যুবকের সঙ্গে প্রেমে জড়িয়ে পড়েন স্ত্রী। মুঠোফোনেই চলতে থাকে মন দেওয়া-নেয়া। তবে প্রেমের কথা প্রকাশ্যে এলেই অশান্তি শুরু হয় দুই পরিবারে। পরে প্রেমিকের অন্যত্র বিয়ে ঠিক হয়। বিষয়টি জানতে পেরে বিষপান করে প্রেমিককে ফোনে জানান প্রেমিকা। প্রেমিকার এমন খবরে প্রেমিকও বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।
শনিবার সকাল ৯টার দিকে চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার মজলিশপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরে প্রেমিক-প্রেমিকাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন স্বজনরা। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ১২টার দিকে মারা যান মেয়েটি। তার লাশ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, মজলিশপুর গ্রামের মসজিদপাড়ার এক কিশোর একই গ্রামের পশ্চিমপাড়ার এক কিশোরীর সঙ্গে লেখাপড়া করতেন। তাদের মধ্যে প্রেম সম্পর্কও ছিল। ১০ বছর আগে ওই কিশোরীর বিয়ে হয়ে যায়। বিয়ের পর তার একটি ছেলে সন্তানও হয়। পরে কর্মসংস্থানের জন্য কাতারে যান তার স্বামী। এরপর বেশিরভাগ সময় বাবার বাড়ি মজলিশপুরে থাকতেন মেয়েটি। এতে ফের শুরু হয় ওই ছেলের প্রেম। বিয়ের জন্য ব্যকুল হয়ে ওঠেন তারা। বিষয়টি জানাজানি হলে বাঁধসাধে তাদের পরিবারের লোকজন। পরে ওই বিষয় নিয়ে তাকে বকাঝকা করা হলে সবার অজান্তে গতকাল শনিবার সকালে বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন মেয়েটি। প্রেমিকার বিষপানের খবর পেয়ে ছেলেটিও বিষপান করেন। তাদের উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন পরিবারের সদস্যরা। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ১২টার দিকে মেয়েটি মারা যান।

সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক হাসনাত পারভেজ শুভ বলেন, দুজনের পাকস্থলি ওয়াশ করা হয়েছিল। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে হাসপাতালে ভর্তি রেখে পর্যবেক্ষণ করাও হচ্ছিল। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মেয়েটির মৃত্যু হয়।

এ বিষয়ে দামুড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস ওয়াহিদ বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন







© All rights reserved © uttorersomoy.com
Design BY BinduIT.Com