বৃহস্পতিবার, ৩০ Jun ২০২২, ০৬:৪৯ অপরাহ্ন




গরু-ছাগল চুরি করে চলতেন রাজকীয়ভাবে

গরু-ছাগল চুরি করে চলতেন রাজকীয়ভাবে

নিউজ ডেস্ক :
নওগাঁর বদলগাছি থানা ও জয়পুরহাটের আক্কেলপুর থানা পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে জাকির হোসেন নামের এক ব্যক্তির চারটি বাড়ির গোয়ালঘর থেকে চোরাই ওই ১২টি গরু ও একটি ছাগল উদ্ধার করেছে। গত শনিবার সকাল ১০টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত দুই থানা-পুলিশের এই যৌথ অভিযান চালানো হয়।

এ সময় জব্দ করা হয়েছে গরু-ছাগল চুরির কাজে ব্যবহৃত সরঞ্জামাদি। গ্রেপ্তার করা হয়েছে ওই গরুচোর চক্রের জাকির হোসেন, তার ছেলে আবদুস সবুর, বেয়াই রুহুল আমিন ও নাতজামাই তানজিদ আহাম্মেদকে। তাদের বিরুদ্ধে থানায় গরু চুরি ও অস্ত্র আইনে পৃথক দুটি মামলা হয়েছে।

পুলিশের অভিযানে জানা গেছে, জাকির হোসেন ও তার পরিবারের সদস্যরা রাজকীয়ভাবে চলাফেরা করতেন। তিনি পেশায় একজন গরুচোর। পরিবারে অন্য সদস্যরাও গরু চুরির কাজে যুক্ত ছিলেন। তাদের গ্রেপ্তারের ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

পুলিশ বলছে, জাকির হোসেন একজন কুখ্যাত গরুচোর। তার পরিবারের সবাই মিলে রাতের বেলায় গরু-ছাগল চুরি করে আনার পর সেগুলো বাড়ির গোয়ালঘরে রাখতেন। পরে দূরদূরান্তের হাটবাজারে চোরাই গরু-ছাগলগুলো বিক্রি করতেন। আর যেগুলো বিক্রি করতে পারতেন না সেগুলো জবাই করে মাংস বিক্রি করতেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, প্রায় দুই মাস ধরে নওগাঁর বদলগাছি ও জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার বিভিন্ন স্থানে রাতে সিঁধ কেটে ও বিভিন্ন কৌশলে চোরেরা বাড়িতে ঢুকে গরু-ছাগল চুরি করছিলেন। প্রায় ২৫ দিন আগে রাতে বদলগাছি উপজেলার হলুদবিহার গ্রামের গোলাম মোস্তফার দুটি গরু চুরি হয়। শনিবার সকালে জাকির হোসেন তার বাড়ির অদূরে ঝাপড়িতলার মোড়ে কয়েকটি গরু বিক্রির জন্য ভটভটিতে তুলছিলেন। এসময় গোলাম মোস্তফা নামে এক ভুক্তভোগীর আত্মীয় ভটভটিতে থাকা একটি গরু দেখেন। তখন তিনি গোলাম মোস্তফাকে খবর দেন। পরে গোলাম মোস্তফা ঘটনাস্থলে এসে গরুটি শনাক্ত করেন। তখন জাকির হোসেন ও তার ছেলে গরুটি তাদের কেনা বলে দাবি করেন। মুহূর্তেই সেখানে লোকজন জড়ো হন। পরে স্থানীয় লোকজন ঘটনাটি থানায় জানায়।

পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে জাকির হোসেনের বাড়িতে যায়। ওই বাড়িতে আরও চারটি গরু পাওয়া যায়। চোরাই গরু পাওয়ার খবর মুহূর্তের মধ্যে বদলগাছি ও আক্কেলপুর উপজেলায় ছড়িয়ে পড়ে। তখন চুরি হওয়া গরুর মালিকরা তেঁতুলিয়া গ্রামে জাকির হোসেনের বাড়িতে ভিড় জমান। এর মধ্যে আক্কেলপুর পৌর শহরের হাস্তাবসন্তপুর মহল্লার মিঠু হোসেনের একটি গরু সেখানে পাওয়া যায়।

তখন আক্কেলপুর থানা-পুলিশও ঘটনাস্থলে যায়। এরপর বদলগাছি ও আক্কেলপুর থানা-পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে জাকির হোসেনের চারটি বাড়ি থেকে ১২ চোরাই গরু ও একটি ছাগল উদ্ধার করে। এ সময় জাকির হোসেন, তার ছেলে, বেয়াই ও নাতজামাইকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের কাছ থেকে গরু চুরির কাজে ব্যবহৃত সরঞ্জামাদিও জব্দ করে পুলিশ। পরে বেলা দুইটায় তাদের বদলগাছি থানায় নেয়া হয়।

স্থানীয় কোলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহিনুর ইসলাম স্বপন গণমাধ্যমকে বলেন, জাকির হোসেন ও তার পরিবারের সদস্যরা রাজকীয়ভাবে চলাফেরা করতেন।

আক্কেলপুর থানার ওসি সাইদুর রহমান ও বদলগাছি থানার ওসি আতিকুল ইসলাম জানান, গরুচোর চক্রের চার সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। চোরাই গরু উদ্ধারে অভিযান অব্যহত রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন







© All rights reserved © uttorersomoy.com
Design BY BinduIT.Com