বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ০৯:৪৮ অপরাহ্ন




পীরগাছা জেএন স্কুলে দুই ছাত্রকে মারপিট : শিক্ষকের বিচারের দাবিতে চরম উত্তেজনা

পীরগাছা জেএন স্কুলে দুই ছাত্রকে মারপিট : শিক্ষকের বিচারের দাবিতে চরম উত্তেজনা

পীরগাছা (রংপুর) প্রতিনিধি :
রংপুরের পীরগাছা জেএন মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শরীর চর্চা শিক্ষক আসাদুজ্জামান রাজার নিকট শারীরিক ভাবে দুই শিক্ষার্থীকে মারপিট ও এক অভিভাবককে লাঞ্চিত করার ঘটনা ঘটেছে। এদের মধ্যে  বুধবার এক শিক্ষার্থীকে পীরগাছা হাসপাতালে ভর্তি করা হলে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিচারের দাবিতে এলাকাবাসী ও অভিভাবকদের মাঝে চরম উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের সময় উপজেলা আওয়ামীলীগের এক নেতা আহত হন। পরে পুলিশ-শিক্ষক ও অভিভাবকদের সাথে কয়েক দফা বৈঠক করে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ^াস দিলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।
জানা গেছে, পীরগাছা জেএন মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শরীর চর্চা শিক্ষক আসাদুজ্জামান রাজা গত কয়েক দিন থেকে কোন কারণ ছাড়াই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষকদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করতে থাকেন। তিনি গত ১৩ জানুয়ারী দুপুরে বিদ্যালয়ে ভর্তি হতে আসা দিলশাদ আরাফাত নামে এক শিক্ষার্থীকে মারপিট করেন। এসময় তার সাথে আসা অভিভাবক রাসেল সরকার তার ভাগিনাকে মারধরের কারণ জানতে চাইলে তাকেও লাঞ্চিত করা হয়। পরে অন্য শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা এর প্রতিবাদ করলে শিক্ষক আসাদুজ্জামান রাজা উল্টো তাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেন। গতকাল বুধবার দুপুরে বিদ্যালয় ছুটি শেষে শিক্ষক রাজা ৯ম শ্রেণির মেধাবী শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহ আল জিমকে কাছে ডেকে কোন কারণ ছাড়াই মাঠের মধ্যে মারপিট করে। এতে ওই শিক্ষার্থী জ্ঞান হারিয়ে ফেললে অন্য শিক্ষক ও ছাত্ররা তাকে পীরগাছা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এঘটনা জানাজানি হয়ে পড়লে ক্ষোভে ফেটে পড়েন শিক্ষার্থী, এলাকাবাসী ও অভিভাবকরা। তারা শিক্ষার্থীকে মারার কারণ ও তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে ওই শিক্ষক তার দলবল নিয়ে বিচার চাইতে আসা শিক্ষার্থী, এলাকাবাসী ও অভিভাবকদের উপর চড়াও হয়। এ নিয়ে চরম উত্তেজনা সৃষ্টি হলে পীরগাছা থানা পুলিশ ও স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। এসময় উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শাহ মো: শাহেদ ফারুক আহত হন। পরে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুল কাদের, পীরগাছা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোস্তাফিজার রহমান রেজা পুলিশ-শিক্ষক ও অভিভাবকদের সাথে কয়েক দফা বৈঠক করে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ^াস দিলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।
হাসপাতালে ভর্তি আহত শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহ আল জিম বলেন, আমি বিদ্যালয় ছুটির পর মাঠে দাড়িয়ে ছিলাম। রাজা স্যার হঠাৎ করে আমার ঘাড়ে আঘাত করে। এতে আমি জ্ঞান হারিয়ে ফেলি।
এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত শিক্ষক আসাদুজ্জামান রাজার মোবাইলে ফোন দেয়া হলে ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুল কাদের বলেন, ওই শিক্ষক আমার সাথেও খারাপ আচরণ করেছে। আমরা সকল শিক্ষক মিলে সভাপতির সাথে কথা বলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।
বিদ্যালয়টির সভাপতি পীরগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শেখ শামসুল আরেফীন বলেন, আগের বিষয়ে কেউ অভিযোগ করেনি। বুধবারের ঘটনা আমি অবগত হয়েছি। অভিযোগ পেলে প্রধান শিক্ষকের সাথে বসে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন







© All rights reserved © uttorersomoy.com
Design BY BinduIT.Com