শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ০১:২৭ পূর্বাহ্ন




রংপুরে মা ও মেয়েকে গাছে বেঁধে নির্মম নির্যাতন

রংপুরে মা ও মেয়েকে গাছে বেঁধে নির্মম নির্যাতন

নিউজ ডেস্ক :
রংপুরের পীরগাছায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মা-মেয়েকে গাছে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার দুপুরে নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপলোড করা হলে সঙ্গে সঙ্গে ভাইরাল হয়ে যায়। এ ঘটনায় পীরগাছা থানায় ১৭ জনকে আসামি করে একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

গত বুধবার উপজেলার পারুল ইউনিয়নের অনন্দি ধনিরাম গ্রামে মা-মেয়েকে গাছে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। নির্যাতনের শিকার মা গোলাপী বেগম ও মেয়ে রাবেয়া বেগম ওই গ্রামের সাজাহান মিয়ার স্ত্রী ও কন্যা।

মামলার এজাহার ও ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, অনন্দি ধনিরাম গ্রামের সুজা মিয়ার ছেলে সাজাহান মিয়ার সঙ্গে প্রতিবেশী গোফ্ফার মিয়ার ছেলে জিয়ারু মিয়ার জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। গত বুধবার সকালে আবারো জিয়ারু ও তার লোকজন সাজাহানের জমি দখল করে গাছ ও রাস্তা কাটতে থাকেন। এ সময় সাজাহান ও তার পরিবারের লোকজন বাঁধা দেয়। এতে জিয়ারু ও তার লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে সাজাহানের স্ত্রী গোলাপী বেগম ও মেয়ে রাবেয়া বেগমকে গাছে বেঁধে নির্যাতন চালায়।পরে স্থানীয়রা ৯৯৯ লাইনে ফোন দিলে পীরগাছা থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আহত অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।

এ ঘটনার গতকাল বৃহস্পতিবার সাজাহান বাদী হয়ে পীরগাছা থানায় ১৭ জনকে আসামি করে একটি এজাহার দায়ের করেন। সাজাহান মিয়া জানান, প্রতিবেশী জিয়ারু ও তার লোকজন জমি দখলে ব্যর্থ হয়ে আমার স্ত্রী ও মেয়েকে গাছে বেঁধে নির্যাতন চালায়। থানায় অভিযোগ করেছি। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

রংপুরের এএসপি (সি সার্কেল) আশরাফুল আলম বলেন, এ ঘটনায় উভয় পক্ষ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন







© All rights reserved © uttorersomoy.com
Design BY BinduIT.Com