শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ০২:০৯ পূর্বাহ্ন




উত্তরবঙ্গের মানুষ নানা বৈষম্যের শিকার, জাতীয় পার্টির নেতৃত্বে এর অবসান ঘটানো হবে- জিএম কাদের

উত্তরবঙ্গের মানুষ নানা বৈষম্যের শিকার, জাতীয় পার্টির নেতৃত্বে এর অবসান ঘটানো হবে- জিএম কাদের

শাহজাহান আলী মনন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি :
উত্তরবঙ্গ তথা রংপুর-দিনাজপুর অঞ্চলের মানুষ এরশাদ শাসনামলের পর থেকে উন্নয়ন সহ নানা ক্ষেত্রে বৈষম্যের শিকার। আগামীতেও জাতীয় পার্টির নেতৃত্বে সরকার গঠন করে অতীতের মত এই বৈপরীত্যের অবসান ঘটানো হবে। এমন মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের। তিনি মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২ টায় ঢাকা থেকে লালমনিরহাট যাওয়ার পথে সৈয়দপুর বিমানবন্দরে নেমে এসব কথা বলেন।

এসময় তাঁকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও মহানগর জাপা সভাপতি গোলাম মোস্তফা, সাধারণ সম্পাদক ইয়াসিন হোসেন, নীলফামারী-৪ (সৈয়দপুর-কিশোরগঞ্জ) আসনের এমপি আলহাজ্ব আহসান আদেলুর রহমান, নীলফামারী-৩ (জলঢাকা) আসনের এমপি মেজর (অব:) সোহেল মোহাম্মদ রানা, সৈয়দপুর উপজেলা জাপা সভাপতি আলহাজ্ব সিদ্দিকুল আলম।

বিমানবন্দরের ভিআইপি লাউঞ্জের সামনে উপস্থিত সৈয়দপুর, নীলফামারী, তারাগঞ্জ, রংপুর ও লালমনিরহাট থেকে আগত নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্যকালে জি এম কাদের আরও বলেন, চলমান সময়ের সরকারী উন্নয়ন ও ত্রাণ সহযোগীতা প্রাপ্তি থেকে আমরা উত্তরবঙ্গের মানুষেরা নানাভাবে বঞ্চিত।

অথচ জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক সফল রাষ্ট্রপতি, পল্লী বন্ধু মরহুম হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদের শাসনামলে সারাদেশে সমভাবে কাজ করা হয়েছে। যার ফলে বাংলাদেশ অল্পসময়ে উন্নতির পথে এগিয়ে গেছে। কারণ তখন প্রকৃত গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত ও উন্নয়নমুখী কার্যক্রম অব্যাহত ছিল। যা বর্তমানে নেই বরং উন্নয়নের নামে লুটপাট চলছে।

তিনি বলেন, আশার কথা হলো বিবদমান অবস্থার প্রেক্ষিতে বর্তমানে জনগণ এরশাদ আমলের সেই উন্নয়নের সাথে তুলনা করে জাতীয় পার্টির প্রতি ঝুঁকেছে। তারা বাস্তবতা উপলব্ধি করে জাপাকেই আবার ক্ষমতায় আনার জন্য আগ্রহী। যার প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে চলমান নানা কর্মসূচিতে সর্বস্তরের মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ। আজ এখানেও তাই এত মানুষের উপস্থিতি।

জাপা চেয়ারম্যান আরও বলেন, সেই আশার আলোকেই আমরা আগামীতে রাষ্ট্র ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য সাংগঠনিক পরিকল্পনানুযায়ী কার্যক্রম শুরু করেছি। এই কাজকে সফল করতে পার্টির নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থেকে সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধির পাশাপাশি জনগণকে আরও বেশী সম্পৃক্ত করতে প্রচেষ্টা চালাতে হবে। এজন্য তিনি সকলের প্রতি আহবান জানান। যেন সফল হয়ে এ অঞ্চলের মানুষের সকল বৈষম্যের অবসান ঘটিয়ে ভাগ্যের উন্নয়ন ঘটানো সম্ভব হবে।
এসময় সংবাদকর্মীরা প্রশ্ন করার চেষ্টা করলেও তিনি তা এড়িয়ে যান এবং দ্রুত গাড়ীবহর নিয়ে রংপুরের উদ্দেশ্যে নেতাকর্মীদেরসহ যাত্রা করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন







© All rights reserved © uttorersomoy.com
Design BY BinduIT.Com