সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ১২:৫৫ পূর্বাহ্ন




সুন্দরগঞ্জে বালুচর ভরে উঠেছে ভূট্টায়

সুন্দরগঞ্জে বালুচর ভরে উঠেছে ভূট্টায়

মোঃ হযরত বেল্লাল, সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি :
কৃষকদের জন্য বালুচর এখন আর্শীবাদ। আজ থেকে ২৫ বছর আগে ভূট্টার চাষাবাদ নিয়ে কৃষকদের কোন ভাবনা ছিল না। কিভাবে ভূট্টা চাষবাদ করতে হয় তাও জানা ছিল না অনেকের। অথচ আজ সেই ভূট্টার চাষাবাদে ভরে উঠেছে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার তিস্তার বালুচর। সে সমস্ত জমি-জমা গো-চারণ ভূমি এমনকি পতিত ছিল সেই সমস্ত জমিতে এখন চাষাবাদ হচ্ছে ভূট্টার। বিশেষ করে তিস্তার চরাঞ্চলে ব্যাপক হারে ভূট্টার চাষাবাদ হয়েছে। পাশাপাশি ফলনও দেখা দিয়েছে ভাল। উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছর উপজেলায় ৫ হাজার ২৫০ হেক্টর জমিতে ভূট্টার চাষাবাদ হয়েছে। যা গত বছরের তুলনায় অনেক বেশি। দিন দিন ভূট্টার চাষাবাদ বেড়েই চলছে। কথা হয় কাপাসিয়া ইউনিয়নের ভূট্টা চাষি আব্দুস সাত্তার মিয়ার সাথে। তিনি ৫ বিঘা জমিতে ভূট্টা চাষ করেছেন। এতে তার খরচ হয়েছে ৩২ হাজার টাকা। তিনি আশা করছেন ৫ বিঘা জমির ভূট্টা বিক্রি করে ২ লাখ টাকা আয় করবে। তিনি আরও বলেন অল্প খরচে অধিক লাভের আশায় চরের কৃষকরা এখন ভূট্টা চাষে আগ্রহী হয়ে উঠছে। চরের বেশিভাগ জমিতে এনকে-৪০, কোহিনুর, কাবেরি, ডন প্রজাতের ভূট্টা চাষাবাদ হচ্ছে। একবিঘা জমিতে ৮ হতে ১২ মন ভূট্টা উৎপাদন হয়ে থাকে। বর্তমান বাজারের প্রতিমন ভূট্টা ৪ হতে ৪ হাজার টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ সৈয়দ রেজা-ই মাহমুদ জানান, ধান ও গম ও আলু চাষের পাশাপাশি এখন কৃষকরা ভূট্টা চাষের প্রতি বেশি আগ্রহী হয়ে উঠছে। তিস্তার বুকে জেগে উঠা জমিতে এখন ব্যাপক হারে ভূট্টা চাষাবাদ হচ্ছে। উপজেলার মাটি ভূট্টা চাষের জন্য অত্যন্ত উপযোগি।

নিউজটি শেয়ার করুন







© All rights reserved © uttorersomoy.com
Design BY BinduIT.Com