সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ০১:২২ পূর্বাহ্ন




গোবিন্দগঞ্জে গার্মেন্টস কর্মী হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তি

গোবিন্দগঞ্জে গার্মেন্টস কর্মী হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তি

শামীম রেজা ডাফরুল, গোবিন্দগঞ্জ(গাইবান্ধা) প্রতিনিধি :
গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে গার্মেন্টস কর্মী শাহারুল ইসলামকে কুপিয়ে হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে সাইফুল ইসলাম (৪৫)। গোবিন্দগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের বিচারক পার্থ ভদ্র তার জবানবন্দি লিপিবদ্ধ করেন।
গ্রেফতার সাইফুল উপজেলার কামারদহ ইউনিয়নের সোনারপাড়া গ্রামের মৃত ছলিম উদ্দিনের ছেলে। নিহত শাহারুল ইসলাম দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট পৌর এলাকার মিতালী গুচ্ছগ্রামের হাতেম আলীর ছেলে। সে ঢাকায় একটি গার্মেন্টস কারখানায় চাকরী করত।
পুলিশ জানায়, এর আগে বৃহস্পতিবার দুপুরে ফাঁসিতলা থেকে সাইফুলকে গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এ সময় সে শাহারুলকে হত্যার দায় স্বীকার করে স্বেচ্ছায় আদালতে জবানবন্দি দিতে রাজি হয়। এরই প্রেক্ষিতে শুক্রবার বিকালে তাকে জবানবন্দি গ্রহনের আবেদনসহ আদালতে হাজির করা হলে বিচারক জবানবন্দি গ্রহন শেষে সাইফুলকে জেলা কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।
উল্লেখ্য, উপজেলার কামারদহ ইউনিয়নের নয়াপাড়া গ্রামের জোনাবালী তার মেয়ে রাখি’র সঙ্গে বিয়ে দেয়ার জন্য শাহারুলকে ২৮ ফেব্রæয়ারি কৌশলে বাড়ীতে ডেকে নেন। এ সময় সাইফুল বিয়ে করার জন্য শাহারুলকে চাপ দেন। কিন্তু এতে রাজি না হওয়ায় তাকে এলোপাথারী কুপিয়ে হত্যা করে লাশ ওই গ্রামের আফতাব হোসেনের বাড়ী সংলগ্ন নওদাপাড়া ব্রীজের পাশে ফেলে রাখা হয়। পরদিন পুলিশ লাশ উদ্বার করে গাইবান্ধা মর্গে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই লুৎফর রহমান বাদি হয়ে ১৩ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ৭ জনকে আসামি করে গোবিন্দগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

নিউজটি শেয়ার করুন







© All rights reserved © uttorersomoy.com
Design BY BinduIT.Com