সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ০৫:১৯ পূর্বাহ্ন




শনিবার নীলফামারী জেলায় ৬৩৭ বাড়ি হস্তান্তর, সৈয়দপুরের বরাদ্দ প্রাপ্তদের সাথে কথা বলবেন প্রধানমন্ত্রী

শনিবার নীলফামারী জেলায় ৬৩৭ বাড়ি হস্তান্তর, সৈয়দপুরের বরাদ্দ প্রাপ্তদের সাথে কথা বলবেন প্রধানমন্ত্রী

শাহজাহান আলী মনন, নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি :
আগামীকাল শনিবার (২৩ জানুয়ারি) নীলফামারী জেলার ৬৩৭ ভূমিহীনের মাঝে বিভিন্ন আশ্রয়ণ প্রকল্পে নির্মিত বাড়ি হস্ততান্তর করা হবে। দেশব্যাপী বাড়ি হস্তান্তর উপলক্ষে আয়োজিত ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জেলার সৈয়দপুর উপজেলার বরাদ্দপ্রাপ্তদের সাথে কথা বলবেন। এজন্য উপজেলার কামারপুকুর ইউনিয়নের নিজবাড়ি আশ্রয়ণ প্রকল্পের মাঠে ব্যাপক আয়োজন করা হয়েছে। সৈয়দপুর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে গৃহিত কার্যক্রম তদারকির জন্য কয়েকদিন থেকে রংপুর বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসক সকাল বিকাল অনুষ্ঠানস্থলের প্রস্তুতি পর্যবেক্ষন করছেন। ২১ ও ২২ জানুয়ারী (বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার) তাঁদের উপস্থিতিতে ট্রায়াল কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে গত ২১ জানুয়ারী বৃহস্পতিবার সকালে ডিসি অফিসের কনফারেন্স রুমে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে মিডিয়াকর্মীদের জানানো হয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৩ জানুয়ারী দেশের ৬৯ হাজার ৯০৪ জন ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমিসহ বাড়ি প্রদান কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন। দেশব্যাপী বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় ভূমি ও গৃহহীনদের মাঝে এসব বাড়ি বিতরণ করা হবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের চারটি ‍উপজেলার ভূমিহীনদের সাথে অনলাইনে সংযোগ হবেন। এরমধ্যে নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর উপজেলার কামারপুকুর আশ্রয়ণ প্রকল্পে বাড়ি পাওয়া ভূমিহীনদের সাথে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কথা বলবেন তিনি।

সূত্রটি জানায়, সরকারী খাস জমিতে ‘জমি নেই, বাড়ি নেই’ এমন পরিবারের জন্য তৈরী করা হয়েছে এসব বাড়ি। প্রতিটি বাড়িতে দুটি শয়ন কক্ষ ছাড়াও থাকছে একটি করে বারান্দা, রান্না ঘর ও বাথরুম। পানির ব্যবস্থা নিশ্চিত করার পাশাপাশি সংযোগ দেয়া হয়েছে বিদ্যুৎ। প্রতিটি বাড়ি তৈরীতে ব্যয় ধরা হয়েছে এক লাখ ৭১ হাজার টাকা। দৃষ্টি নন্দন লাল-সবুজ রংয়ের এই ঘরগুলো এখন গৃহহীন মানুষের স্বপ্ন পূরণের সারথী।

সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাসিম আহমেদ জানান, কামারপুকুর ইউনিয়নের ৩৪টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার প্রথম দিন থেকে বিদ্যুৎ সুবিধা পাবে। নিজবাড়ি আশ্রয়ণ প্রকল্পটি বাজার সংলগ্ন হওয়ায় কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। পুকুরে গোসলের জন্য ঘাট নির্মানের পাশাপাশি মসজিদ ও কমিউনিটি সেন্টার গড়ে তুলে এসব পরিবারের লোকজনদের কারিগরী শিক্ষার আওতায় নেয়া হবে।

নীলফামারী জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী বলেন, প্রথম ধাপে নীলফামারী জেলার ৬৩৭ জন ভূমিহীন ও গৃহহীন মানুষ পাচ্ছেন স্বপ্নের ঠিকানা। দীর্ঘদিন পর কাঙ্খিত ঠিকানা পাওয়ার উচ্ছাস এখন সবার মনে। প্রধানমন্ত্রী ২৩ জানুয়ারী সারাদেশের আশ্রয়ণ প্রকল্পের এসব ঘর ভূমিহীন ও গৃহহীনদের মাঝে আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে দেবেন। এ দিন দেশের চারটি উপজেলার মধ্যে সৈয়দপুর উপজেলার কামারপুকুর ইউনিয়নের আশ্রয়নে আশ্রয় পাওয়া মানুষদের সাথে সরাসরি কথা বলবেন তিনি।

রংপুর বিভাগীয় কমিশনার আব্দুল ওহাব ভূঞা বলেন, রংপুর বিভাগের ৮ জেলার ৯ হাজার ১৬৫ ভূমিহীন পরিবারকে দুই শতক জমির দলিলসহ ঘর প্রদান করা হচ্ছে মুজিব জন্মবার্ষিকীতে। এর মাধ্যমে তারা যেমন নিজেদের মাথা গোঁজার ঠাঁই পাচ্ছে, তেমনি তারা উপার্জনের পথও খুঁজে পাবে। অপরদিকে জন্মদিনে মহাধুমধাম না করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী গৃহহীণদের আশ্রয় দিয়ে তাদের মাঝেই আনন্দ খুঁজে নিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন







© All rights reserved © uttorersomoy.com
Design BY BinduIT.Com