রবিবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২০, ০৬:২৫ পূর্বাহ্ন




সুন্দরগঞ্জে মুজিব শতবর্ষ ক্ষণগণনা মেশিন ভাংচুর, সংঘর্ষে আহত-৬

সুন্দরগঞ্জে মুজিব শতবর্ষ ক্ষণগণনা মেশিন ভাংচুর, সংঘর্ষে আহত-৬

মোঃ হযরত বেল্লাল, সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি :
গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নুরুন্নবী সরকারের (পিআইও) বদলিকে কেন্দ্র করে জাতীয় পার্টির ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতার কর্মীদের বিক্ষোভ মিছিলের এক পর্যায়ে মুজিব শতবর্ষ ক্ষণগণনা ডিজিটাল মেশিন ভাংচুর ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স ভবনের মূল ফটকে ঘটনাটি ঘটে। জানা গেছে, পিআইও নুরুন্নবী সরকারের অপসারণের দাবিতে জাতীয় পার্টি ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপজেলা দলীয় কার্যালয় হতে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স ভবনের মূল ফটকে যায়। বিক্ষুদ্ধ নেতাকর্মীরা মূল ফটকের সামনে বিক্ষোভ করার একপর্যায় মূল ফটকের উপরে ঝুঁলানো মুজিব শতবর্ষের ডিজিটাল ক্ষণগণনা মেশিন ভাংচুর করে। এ সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত উপজেলা পৌর ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক সুমন মিয়া প্রতিবাদ করলে সংঘর্ষের বাধে।

এতে উভয়ের পক্ষের মধ্যে উপজেলা ছাত্র সমাজের সভাপতি শাহ সুলতান সরকার সুজন, পৌর ছাত্র সমাজের সভাপতি সুমন মিয়া, পৌর ছাত্রলীগ আহবায়ক মাইদুল ইসলাম, যুগ্ম আহবায়ক সুমন মিয়া, ছাত্রলীগ নেতা জনি মিয়া, বাবলু মিয়া, ঠিকাদার আব্দুর রউফ সরকার পিয়াল আহত হয়। আহতরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। ক্ষণগণনা মেশিন ভাংচুরের ঘটনায় পুলিশ ছাপড়হাটী ইউনিয়নের ছাত্র সমাজের সভাপতি সাইফুল ইসলামকে ঘটনাস্থল হতে আটক করে। সাইফুল দক্ষিণ মরুয়াদহ গ্রামের আজগর আলী ছেলে। এরই প্রতিবাদে তাৎক্ষণিকভাবে উপজেলা আ’লীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা একটি বিক্ষোভ মিছিল করে। মুজিব শতবর্ষ ক্ষণগণনা ডিজিটাল মেশিন ভাংচুরের ঘটনা নিয়ে উপজেলা প্রশাসনিক কর্মকর্তা শাহ মো. ফেরদৌস হোসেন বাদি হয়ে থানায় একটি মামলা করে। থানা অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহিল জামান জানান, ভাংচুরের ঘটনা নিয়ে থানায় একটি মামলা হয়েছে। ইতিমধ্যে ভাংচুরের ঘটনায় ছাপড়হাটী ইউনিয়ন ছাত্র সমাজের সভাপতি সাইফুল ইসলাম আটক করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সোলেমান আলী জানান, মুজিব শতবর্ষ ক্ষণগণনা ডিজিটাল মেশিন ভাংচুরের ঘটনা নিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য থানা পুলিশকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। তবে বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ’লীগ যুগ্ম আহবায়ক আশরাফুল আলম সরকার জানান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কোন দলের নয়। তিনি সকলের নেতা। মুজিব শতবর্ষ ক্ষণগণনা ডিজিটাল মেশিন ভাংচুরের বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক। তিনি আরও বলেন, এব্যাপারে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ হতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন







© All rights reserved © uttorersomoy.com
Design BY BinduIT.Com