মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:০৩ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অন্তর্ভুক্তি শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত জলঢাকায় জরাজীর্ণ ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের বেহাল অবস্থা আটোয়ারীতে মাছের ভাসমান খাদ্য তৈরীর মেশিন বিতরণ গোবিন্দগঞ্জ ডায়াবেটিস হাসপাতালের উন্নয়নে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত অক্টোবর-নভেম্বরে বাড়তে পারে করোনা সংক্রমণ রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোস্তফার সাথে কর্মচারী ইউনিয়নের উপদেষ্ঠা এবং এডহক কমিটির নেতৃবৃন্দের শুভেচ্ছা বিনিময় হিলিতে আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক সভা অনুষ্ঠিত রংপুরে সিটি এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের উদ্বোধন নীলফামারী উপজেলা আ’লীগের সভাপতি আবুজার রহমানের ওপর হামলা, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান নিক্সন গ্রেফতার পঞ্চগড়সহ সাংবাদিকদের উপর নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন




উলিপুরে হারিয়ে যাচ্ছে ঔষধী গাছ

উলিপুরে হারিয়ে যাচ্ছে ঔষধী গাছ

ফয়জার রহমান রানু, উলিপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি :
কুড়িগ্রামের উলিপুরে হারিয়ে যাচ্ছে ঔষধী গাছ। এ অঞ্চলের মাটিতে জন্ম নেওয়া ঔষধী উদ্ভিত আর চোখে পরে না। এক সময়ে বন-জঙ্গলে, পুকুর পাড়, নালার ধারসহ গ্রামীন জনপদের উঁচু স্থান গুলোতে বিভিন্ন জাতের ঔষধী গাছ দেখাযেত। এখন সে সব বিলপ্তির পথে, উপজেলার গুনাইগাছ, থেতরাই, বজরা, ধরণীবাড়ী সহ বিভিন্ন ইউনিয়নে গ্রামে গঞ্জে এক সময় প্রচুর ঔষধের উদ্ভিত জন্মিত। থেতরাই ইউনিয়নের কবিরাজ পরিবারের সন্তান বাইজীদ বোস্তামী বলেন, ‘আমার দাদা ইব্রহীম আলী মাষ্টার দেশ স্বাধীনের আগে ও পরে দীর্ঘ সময় ধরে ঔষধী গাছের কবিরাজি চিকিৎসক ছিলেন। স্থানীয় ও দুর-দুরান্ত থেকে আগত রুগীকে ঔষধী গাছের ভেষজ দিতেন এবং তার দেওয়া ঔষধ সেবন করে অনেক রোগ ভাল হত। গুনাইগাছ গ্রামের আব্দুর রহিম জানান আমার বাবা মরহুম কেরামত আলী একজন নাম করা কবিরাজ ছিলেন। আমি দেখেছি বাবা নিজেই কালমেঘ, নিম গাছ, আম লক্ষী, বয়রা, হরতকী, শতমুলী, তেলা কুচ,া অসক গাছ, বাসক থানকুনি, ভুই কুমরা, পাথর কুচি, অর্জুন গাছ লাগাতেন এবং পরিচর্যা করতেন। বাবা মারা যাবার পর এসব গাছ রাখা হয়নি বাড়ীতে এলাকার কয়েক জন প্রবীন কবিরাজ জানান এক সময় বনে জংগলে বাড়ীর আসপাশে পুকুর পাড়ে নানা জাতের ঔষধী উদ্ভিত জন্ম নিত। শিশু-কিশোর, যুবক ও বৃদ্ধ বয়স পর্যন্ত অসুখ হলেই ঔষধী গাছের বাকল পাতার রশ করে খাওয়াতেন, রোগও নিরাময় হত। আজ ঔ সব ঔষধী গাছ ১০-১২ গ্রাম ঘুরেও আর পাওয়া যায় না। এলাকার শ্রী রাম মহন রায় বলেন ৪০ বছর ধরে কবিরাজী চিকিৎসা করে আসছি। ৯০ এর দশক পর্যন্ত ভেষজ ঔষধের প্রতি মানুষের আগ্রহ ছিল প্রচুর। কিন্তু এখন আর ঔষধী গাছ চোখে পড়ে না।

নিউজটি শেয়ার করুন







© All rights reserved © uttorersomoy.com
Design BY NewsMoon.Com